সর্বশেষ প্রকাশ
Home / শ্রমিক নিয়োগ / রপ্তানীমূখী পোশাক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ নীতিমালা
রপ্তানীমূখী পোশাক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ
রপ্তানীমূখী পোশাক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ নীতিমালা

রপ্তানীমূখী পোশাক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ নীতিমালা

নিয়োগ নীতিমালা

পলিসির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য: গ্র“প একটি রপ্তানীমূখী পোশাক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। কোম্পানী ও শ্রম আইনানুসারে ব্যবসায় পরিচালনা ও দেশের বেকার সমস্যার সমাধান করা অত্র কোম্পানীর সকল ইউনিটের প্রধান লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন কল্পে অত্র কোম্পানী একটি সুনির্দ্দিষ্ট নিয়োগ নীতি অনুসরণ করে থাকে। অপ্রাপ্ত বয়¯ক (১৮ বছরের নীচে) কোন শ্রমিক নিয়োগ করা হয় না। নিয়োগের ক্ষেত্রে জাতি, ধর্ম, বর্ণ, লিঙ্গ ইত্যাদি বিবেচনা না করে শুধুমাত্র যোগ্যতা অনুসারে নিয়োগ করা হয়। কোম্পানীতে শ্রমিক নিয়োগ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্যএকটি নিয়োগ নীতিমালা প্রনোয়ণ করা হয়েছে।

কার্যকরী পরিষদ ঃ

কর্মসংস্থানের জন্য আগত প্রার্থীদের সকলের প্রতি কোন প্রকার বৈষম্যমূলক আচরন বা স্বজনপ্রীতি না করে জাতি ,ধর্ম, বর্ণ, নির্বিশেষে সকলের নিয়োগের ক্ষেত্রে তাদের যোগ্যতাকে প্রাধান্য দেওযা হয় ।আর এই নিয়োগ সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যাবলী সদা নিয়ন্ত্রন এবং সুষ্ঠু ও সঠিকভাবে সম্পাদনের নিমিত্তে একটি নিয়োগ কমিটি কার্যকরী আছে যা নিম্নরূপঃ
০১। পরিচালক ও জি,এম এডমিন- সভাপতি ও সহ: সভাপতি (সার্বিক তত্বাবধায়ক)
০২। আই.ই কর্মকর্তা ও শাখা ব্যবস্থাপক গ্রেড নির্ধারন অতপর জেনারেল ম্যানেজার, উৎপাদন- সদস্য (গ্রেডিং চেক এর চুড়ান্ত অনুমোদন)
০৩। আই.ই কর্মকর্তা গ্রেড নির্ধারন অতপর সহকারী জেনারেল ম্যানেজার- সদস্য (গ্রেডিং চেক এর চুড়ান্ত অনুমোদন)
০৪। এ,জি,এম -এইচ আর এন্ড কমপ্লাইন্স ও একাউন্স চীফ – সদস্য (নিয়োগ, মজুরী নির্ধারণ ও পর্যবেক্ষন)
০৫। সহকারী ম্যানেজার, এইচ আর এন্ড কমপ্লাইন্স ও সি: এইচ আর এন্ড কমপ্লাইন্স – সদস্য (নিয়োগ, মজুরী নির্ধারণ)
০৬। শমিক কল্যাণ কর্মকর্তা – সদস্য (নিয়োগ কার্যক্রম)
০৭। কোম্পানী ডাক্তার/নার্স – সদস্য (নিয়োগ কার্যক্রম) (বয়স নিরুপনের জন্য)
০৮। ব্যবস্থাপক – কাটিং ,সুইং, ফিনিশিং,ওয়াশিং,এক্সেসরিজ ও কোয়ালিটি- সদস্য (গ্রেড নির্ধারণ) ।
০৯। এইচ আর এন্ড কমপ্লাইন্স অফিসারবৃন্ধ- নিয়োগ পত্র বিতরন ও আই.ডি কার্ড বিতরন নিশ্চিতকরন।
১০। নিরাপত্তা কর্মী – সদস্য, অপ্যায়ন ও শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা।
পরিশিষ্ঠ : ষ্টাফ নিয়োগ এর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ঠ সেকশন প্রধানের উপস্থিতিতে বোর্ড গঠন করা হয়ে থাকে এবং নিয়োগ এর চুড়ান্ত অনুমোদন নির্বাহী পরিচালক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

কার্যসূচী ঃ

এই নিয়োগ কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিস্ট সকলেই সব কিছুর উর্ধ্বে থেকে নিয়োগ নীতিমালা অনুষরন করে নিয়োগ কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দর ভাবে পরিচালনার জন্য সদা তৎপর হবেন।

ঞযব ৎড়ঁঃরহবং ড়ৎ ঢ়ৎড়পবফঁৎব ভড়ৎ রসঢ়ষবসবহঃধঃরড়হ ড়ভ ঃযব ঢ়ড়ষরপু
সুষ্ঠু ও সঠিকভাবে শ্রমিক/কর্মচারী নিয়োগের জন্য অত্র কোম্পানীর অনুসৃত নীতিমালা নিন্মে উল্লেখ করা হল ঃ
১। নিয়োগের শ্রেনীবিভাগ।
২। চাকুরীর যোগ্যতা।
৩। নিয়োগ প্রক্রিয়া।

নিয়োগের শ্রেনী বিভাগ ঃ

গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ২০০৬ এর শ্রম আইনে বর্ণিত গেজেট অনুযায়ী অত্র কোম্পানীতে শ্রমিক নিয়োগ করা হয় এবং ২০১০ ইং সনের সরকার ঘোষিত গেজেট অনুযায়ী বেতন/মজুরী কাঠামো অনুযায়ী তাদের বেতন প্রদান করা হয়।

চাকুরীর যোগ্যতা ঃ

অত্র কোম্পানীতে শ্রমিক/কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত বিষয়গুলির প্রতি লক্ষ্য রাখা হয়ঃ
১) শিক্ষাগত যোগ্যতা
২) বয়স
৩) শারীরিক সক্ষমতা
৪) কর্মদক্ষতা
৫) পূর্ববর্তী চাকুরীর রেকর্ড
অত্র কোম্পানীতে অপ্রাপ্ত বয়¯ক কোন শ্রমিক নিয়োগ করা হয় না। বয়স নিরূপনের ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয় পত্র, শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ এবং চেয়ারম্যান/ওয়ার্ড কমিশনারের সার্টিফিকেট এর ফটোকপি সত্যায়িত প্রযোজ্য। এছাড়া কোম্পানীর মেডিকেল অফিসার শ্রমিকদের বয়স নিরূপন করে সার্টিফিকেট প্রদান করেন। সার্টিফিকেট সমূহ শ্রমিকদের ব্যাক্তিগত (চবৎংড়হধষ) ফাইলে সংরক্ষন করা হয়।

নিয়োগ প্রক্রিয়া ঃ

কারখানায় শ্রমিক/কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রে কেবলমাত্র বাংলাদেশী নাগরিকদের নিয়োগ দেয়া হয়। নিয়োগের ক্ষেত্রে কোন বর্ণ বৈষম্য নেই এবং জাতি, ধর্ম, বর্ণ, লিঙ্গ নির্বিশেষে সকলকে যোগ্যতা অনুসারে নিয়োগ করা হয়। বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এ বর্ণিত গেজেট অনুযায়ী অত্র কোম্পানীতে শ্রমিকদের কর্মে নিয়োগ করা হয় এবং বেতন/মজুরী কাঠামো অনুুয়ায়ী প্রদান করা হয়। শ্রমিক/কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা, বয়স, শারীরিক সক্ষমতা, কর্মদক্ষতা, পূর্ববর্তী চাকুরীর রেকর্ড ইত্যাদি বিষয়গুলির প্রতি লক্ষ্য রাখা হয়। অপ্রাপ্ত বয়স্ক কোন শ্রমিক নিয়োগ করা হয় না এবং বয়স নিরূপনের ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয় পত্র, শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট এবং চেয়ারম্যান/ওয়ার্ড কমিশনারের সার্টিফিকেট প্রযোজ্য।

”ক” পরিচ্ছেদ – ২০১০ইং সনের সরকার ঘোষিত গেজেট অনুসারে

শ্রমিক পদবিন্যাস

মূল মজুরী(টাকা) – বাড়ীভাড়া ভাতা  (৪০%হারে) (টাকা)  – চিকিৎসা ভাতা (টাকা) – মোট মজুরী (টাকা)
১ ২ ৩ ৪ ৫
গ্রেড-১ ঃ ৬,৫০০/- ২,৬০০/- ২০০/- ৯,৩০০/-

(১) প্যাটার্ন মাস্টার
(২) চীফ কোয়ালিটি কন্ট্রোলার;
(৩) চীফ কাটিং মাস্টার/কাটিং চীফ;ও
(৪) চীফ মেকানিক।
গ্রেড- ২ ৫,০০০/- ২,০০০/- ২০০/- ৭২০০/-

(১) মেকানিক/ইলেকট্রিশিয়ান
গ্রেড-৩ ২,৮৭০/- ১,১৪৮/- ২০০/- ৪,২১৮/-
(২) কাটিং মাস্টার
(১) স্যাম্পল মেশিনিস্ট
(২) মেকানিক
(৩) সিনিয়র সেলাই মেশিন অপারেটর
(৪) সিনিয়র উইনডিং মেশিন অপারেটর
(৫) সিনিয়র নিটিং মেশিন অপারেটর
(৬) সিনিয়র লিঙ্কিং মেশিন অপারেটর
(৭) সিনিয়র কাটার;
(৮) সিনিয়র কোয়ালিটি ইন্সপেক্টও;
(৯) সিনিযর মার্কার/সিনিযর ড্রইংম্যান/সিনিয়র ড্রইংওম্যান
(১০) সিনিয়র লাইন লিডার;
(১১) সিনিয়র ওভারলক মেশিন অপারেটর;
(১২) সিনিয়র বাটন মেশিন অপারেটর;ও
(১৩) সিনিয়র কাঞ্চাই মেশিন অপারেটর।
গ্রেড-৪ ২,৬১৫/- ১,০৪৬/- ২০০/- ৩,৮৬১/-

(১) সেলাই মেশিন অপারেটর
(২) নিটিং মেশিন অপারেটর
(৩) লিঙ্কিং মেশিন অপারেটর
(৪) উইনডিং মেশিন অপারেটর
(৫) মার্কার/ড্রইংম্যান/ড্রইংওম্যান
(৬) কাটার;
(৭) মেন্ডিং অপারেটর
(৮) প্রেসিংম্যান/প্রেসিংওম্যান/ফিনিশিং আয়রনম্যান/ফিনিশিং আয়রনওম্যান;
(৯) ফোল্ডার (ফিনিশিং সেকশন)
(১০) প্যাকার;
(১১) কোয়ালিটি ইন্সপেক্টর
(১২) ওভারলক মেশিন অপারেটর;
(১৩) বাটন মেশিন অপারেটর;
(১৪) কাঞ্চাই মেশিন অপারেটর;
(১৫) পলিম্যান/পলিওম্যান
(১৬) প্যাকিংম্যান/প্যাকিংওম্যান; ও
(১৭) লাইন লিডার।

শ্রমিক পদবিন্যাস ২
মূল মজুরী(টাকা) – বাড়ীভাড়া ভাতা  (৪০%হারে) (টাকা)  – চিকিৎসা ভাতা (টাকা) – মোট মজুরী (টাকা)

গ্রেড-৫ ২,৩৯৫/- ৯৫৮/- ২০০/- ৩,৫৫৩/-

(১) জুনিয়র সেলাই মেশিন অপারেটর
(২) জুনিয়র উইনডিং মেশিন অপারেটর
(৩) জুনিয়র নিটিং মেশিন অপারেটর
(৪) জুনিয়র লিঙ্কিং মেশিন অপারেটর
(৫) জুনিযর মার্কার/ জুনিয়র ড্রইং ম্যান/ জুনিয়র ড্রইং ওম্যান;
(৬) জুনিয়র কার্টার;
(৭) জুনিয়র মেন্ডিং অপারেটর;
(৮) জুনিয়র প্রেসিংম্যান/জুনিয়র প্রেসিংওম্যান/জুনিয়র ফিনিশিং আয়রণম্যান/জুনিয়র ফিনিশিং আয়রন ওম্যান;
(৯) ফোল্ডার (ফিনিশিং সেকশন);
(১০) জুনিয়র ইলেকট্রিশিয়ান;
(১১) জুনিয়র প্যাকার;
(১২) জুনিয়র ওভারলক মেশিন অপারেটর;
(১৩) জুনিয়র বাটন মেশিন অপারেটর;ও
(১৪) জুনিয়র কাঞ্চাই মেশিন অপারেটর।
গ্রেড-৬ ২,২৩০/- ৮৯২/- ২০০/- ৩,৩২২/-

(১) সাধারন সেলাই মেশিন অপারেটর
(২) সাধারন উইনডিং মেশিন অপারেটর
(৩) সাধারন নিটিং মেশিন অপারেটর
(৪) সাধারন লিঙ্কিং মেশিন অপারেটর
(৫) সাধারন মেন্ডিং অপারেটর;
(৬) সাধারন ফিউজিং মেশিন অপারেটর;
(৭) সাধারন কালার টার্নিং মেশিন অপারেটর;
(৮) সাধারন ওভারলক মেশিন অপারেটর;
(৯) সাধারন বাটন মেশিন অপারেটর,ও
(১০) সাধারন কাঞ্চাই মেশিন অপারেটর।
গ্রেড-৭ ২,০০০/- ৮০০/- ২০০/- ৩,০০০/-

(১) সহকারী সেলাই মেশিন অপারেটর;
(২) সহকারী উইনডিং মেশিন অপারেটর
(৩) সহকারী নিটিং মেশিন অপারেটর
(৪) সহকারী লিঙ্কিং মেশিন অপারেটর;
(৫) সহকারী মেন্ডিং অপারেটর;
(৬) সহকারী কাটার;
(৭) সহকারী মার্কার/সহকারী ড্রইংম্যান/সহকারী ড্রইংওম্যান;
(৮) পকেট ক্রিজিং মেশিন অপরেটর/ক্রিজিং ম্যান/ক্রিজিং ওম্যান;
(৯) লাইন আয়রণম্যান/লাইন আয়রন ওম্যান;
(১০) সহকারী ড্রাই ওয়াশিং ম্যান/সহকারী ড্রাই ওয়াশিং ওম্যান;
(১১) ওভারলক মেশিন সহকারী;
(১২) বাটন মেশিন সহকারী;
(১৩) কাঞ্চাই মেশিন সহকারী ও
(১৪) ফিনিশিং সহকারী।

শিক্ষানবিশ/ট্রেইনী ঃ

শিক্ষানবীশ/ট্রেইনীগন মাসে ২,৫০০/-(দুই হাজার পাঁচশত) টাকা প্রশিক্ষন ভাতা পাইবেন। তাহাদের শিক্ষানবীশ কাল হইতে ৩ (তিন) মাস। তবে শর্ত থাকে যে, একজন শ্রমিকের ক্ষেত্রে তাহার শিক্ষানবীশ কাল আরও ৩ (িিতন) মাস বৃদ্ধি করা যাইবে যদি কোন কারণে প্রথম ৩ (তিন) মাস শিক্ষানবীশ কালে তাহার কাজের মান নির্নয় করা সম্ভব না হয়। শিক্ষানবীশকাল শেষে উক্ত শিক্ষানবীশ /ট্রেইনীগণ সংশ্লিষ্ট গ্রেডের শ্রমিক হিসেবে নিযুক্ত হইবেন। উল্লেখ্য যে অত্র গ্র“পের কোন ইউনিটে ট্রেইনি নিয়োগ করা হয় না।

”খ” পরিচ্ছেদ

কর্মচারী পদবিন্যাস ও শ্রেনীবিভাগ মূল মজুরী
(মূল মজুরী(টাকা) – বাড়ীভাড়া ভাতা  (৪০%হারে) (টাকা)  – চিকিৎসা ভাতা (টাকা) – মোট মজুরী (টাকা)

৪,৫০০/- ১,৮০০/- ২০০/- ৬,৫০০/-

গ্রেড-১ ঃ
(১) স্টোর কিপার
৩,৫০০/- ১,৪০০/- ২০০/- ৫,১০০/-

গ্রেড-২ ঃ
(১) হিসাব সহকারী
(২) স্টোর সহকারী
(৩) ক্যাশিয়ার;
(৪) ইমপোর্ট সহকারী/এক্্রপোর্ট সহকারী; ও
(৫) কম্পিউটার অপারেটর।

৩,০০০/- ১,২০০/- ২০০/- ৪,৪০০/-

গ্রেড-৩ ঃ
(১) টাইপিস্ট;
(২) ক্লার্ক/অফিস সহাকারী;
(৩) টেলিফোন অপারেটর;
(৪) টাইম কিপার;
(৫) কেয়ার টেকার;
(৬) সিকিউরিটি গার্ড;
(৭) ড্রইভার;ও
(৮) ক্যাম সহকারী।
২,২০০/- ৮৮০/- ২০০/- ৩,২৮০/-
গ্রেড-৪ ঃ
(১) পিয়ন;
(২) দারোয়ান/চেকার;
(৩) কুক;ও
(৪) সুইপার।
২। এই প্রজ্ঞাপনে উল্লেখিত মজুরী হার ১৭ কার্তিক ১৪১৭ বঙ্গাব্দ/০১ নভেম্বর ২০১০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে কার্যকর হইবে।

নিয়োগপত্র প্রদান : নিন্মে উল্লেখীত নিয়োগ পত্রের নমুনা কপি, যাহা নিয়োগ নিশ্চিত হওয়ার সাথে সাথে প্রদান করা হয় এবং নিয়োগপত্র বিতরন এর রেজিষ্টার মেইন্টেইন করা হয়। সাউন্ড সিষ্টেমে এ ব্যপারে প্রচার করা ও হয়ে থাকে এমনকি নেটিশবোর্ডে
ও এ ব্যপারে অবহিত করন করা হয় যে “ কেউ যদি নিয়োগ পত্র না পেয়ে থাকেন তাহলে অফিস চলাকালীন সময়ে এইচ.আর.ডি বিভাগে যোগাযোগ করে আপনার নিয়োগ পত্র সংগ্রহ করতে পারেন”।
তারিখ ঃ কার্ড নং ঃ
নাম ঃ
পিতা/স্বামীর নাম ঃ
গ্রাম ঃ পোষ্ট ঃ
থানা ঃ জেলা ঃ
বিষয় ঃ নিয়োগপত্র।
কর্তৃপক্ষ অত্যন্ত আনন্দের সহিত আপনাকে নিম্নলিখিত র্কু সাপেক্ষে অত্র কারখানার ——-সেকশনে——পদে প্রবেশনারী হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহন করিয়াছেন, যাহা ——–হইতে কার্যকরী হবে ।
১। আপনার কর্মঘন্ট্ াসকাল ৮টা হইতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত (মধ্যহ্ণ বিরতি ১ ঘন্টা, দুপুর ১ টা হতে ২ টা পর্যন্ত)
২। চাকুরীর শিক্ষানবীশ কাল হবে ৩ (তিন) মাস।
৩। প্রবেশনারী পিরিয়ডে আপনাকে প্রতি মাসে সর্বসাকুল্যে বেতন —– টাকা দেওয়া হইবে। যাহার মধ্যে ক) মূল (বেসিক) বেতন ——- টাকা খ) বাড়ী ভাড়া ( মুল বেতনের ৪০%) ——- টাকা গ) চিকিৎসা ভাতা-২০০ /=টাকা অন্তর্ভূক্ত এবং বিনা খরচে চিকিৎস সুবিধা প্রদান করা হইবে।
৪। অতিরিক্ত সময় ঃ ইহা মুল বেতনের দুই গুণ। (মূল বেতন * ২ /২০৮* মোট অতিরিক্ত ঘন্টা)
৫। সাধারণ ছুটি ঃ ক) উৎসব ছুটি ঃ ১১ দিন (পূর্ন বেতনে)
খ) নৈমিত্তিক ছুটি ঃ ১০ কর্মে যোগদানের পর হইতে এ ছুটি প্রযোজ্য হইবে।
গ) বার্ষিক ছুািট ঃ ০১ (এক) বৎসর এই ফ্যাক্টরীতে চাকুরী করার পর আপনি প্রতি ১৮ কর্ম দিবসের জন্য ০১ (এক) দিন করে পূর্ন বেতনে বার্ষিক ছুটি ভোগ করিতে পারিবেন।
ঘ) চিকিৎসা ছুুটি ঃ অসুস্থতা জনিত কারণে আপনি সর্বোচ্চ ১৪ দিন পূর্ন বেতনে ছুটি কাটাইতে পারিবেন।
ঙ) শ্রম আইন অনুযায়ী গর্ভবতি মহিলা শ্রমিকব্ন্দৃ সকল সুবিধা ভোগ করিবেন। (ছুটির মেয়াদ ১৬ সপ্তাহ)
৬। পরিচয়পত্র ঃ আপনাকে পরিচয় পত্র দেওয়া হইবে। আপনি কারখানায় প্রবেশের পূর্বে এবং বের হইবার সময় পরিচয় ঈল্ফ ইলেক্ট্রনিক্স হাজিরা মেশিনে পাঞ্চ করিতে হইবে এবং উক্ত পাঞ্চ মেশিন হইতে আপনার মাসিক হাজিরা এবং অতিরিক্ত কাজের সময় নির্ধারণ করা হইবে ।
৭। প্রবেশন পিরিয়ডে কোম্পানী যে কোন সময় কোন প্রকার বারণ দর্শানো ব্যতিরেকে বিনা নোটিশে আপনার চাকুরী অবসান করিতে পারিবেন অথবা আপনিও চাকুরী হইতে ইস্তফা দিতে পারিবেন।
৮। চাকুরী স্থায়ী হইকার পর আপনি স্বেচ্ছায় চাকুরী হইতে পদত্যাগ করিতে চাহিলে কর্তৃপক্ষকে ৩০(ত্রিশ) দিন পূর্বে লিখিতভাবে নোটিশ দিয়ে অবগত করিতে হইবে।
৯। চাকুরী স্থায়ী হইবার পর কর্তৃপক্ষ আপনার চাকুরী অবসান করিতে চাইলে ১২০ (একশত বিশ ) দিনের লিখিত নোটিশ অথবা নোটিশের পরিবর্তে ১২০(একশত বিশ) দিনের মজুরী প্রদান করিবেন।
১০। আপনার চাকুরী কোম্পানী কর্তৃক জারীকৃত বিধিবিধান ও বাংলাদেশের প্রচলিত শ্রম আইন দ্বারা পরিচালিত হইবে।
১১। কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনবোধে এই প্রতিষ্ঠানে যে কোন বিভাগে অথবা বাংলাদেশে অবস্থিত প্রতিষ্ঠানের যে কোন কারখানায়/অফিসে বদলি করিতে পারিবেন।
১২। কোম্পানীতে যাবতীয় নিয়ম কানুন পরিবর্তনযোগ্য এবং আপনি পরিবর্তিত নিয়ম কানুুন সর্বদা মানিয়া চলিতে বাধ্য থাকিবেন।
১৩. আপনারা আপনাদের প্রয়োজন অনুযায়ী অতিরিক্ত কর্মঘন্টা প্রত্যাক্ষান করিতেন পারিবেন। টয়লেট ব্যবহারের ব্যাপারে কোন ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ নেই এবং আপনাদের স্বাভাবিক চলাচলের উপর কোন ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয় না। আপনাদের যে কোন ধরনের সমস্যা অতি সহজেই কমপ্লা¬াইন্স বিভাগের মাধ্যমে সমাধা করিতে পারিবেন। কোম্পানী ও শ্রম আইনের দ্বারা স্বীকৃত সকল ছুটি সমূহ আপনারা প্রয়োজন অনুযায়ী ভোগ করিতে পারিবেন।
১৪. নিয়োগের সময় শ্রমিকদের নিকট থেকে কোন প্রকার জামানত নেয়া হয় না এবং নিয়োগের ক্ষেত্রে কোন শ্রমিকদের নিকট থেকে মৃল সনদ পত্র নেওয়া হয় না।
( বিঃদ্রঃ- প্রবেশনারী পিরিয়ডে শেষ হইলে পুনরায় আর কোন নিয়োগপত্র কোম্পানীর পক্ষ হইতে প্রদান করা হইবে না। উক্ত নিয়োগ পত্রই কার্যকরী হইবে। )
ধন্যবাদান্তে
অনুলিপি ঃ ১। সংশ্লিষ্ট ব্যবস্থাপক
২। হিসাব বিভাগ
৩। ব্যাক্তিগত নথি
নির্বাহী কর্মী / প্রশাসন
(আমি অত্র নিয়োগ পত্র স^জ্ঞানে পাঠ করিয়া এবং ইহাতে বর্র্ণিত শর্তাদি সম্পুর্ন অবগত হইয়া নিয়োগ পত্র বুঝিয়া পাইয়া স্বাক্ষর করিলাম )

অত্র কোম্পানীতে নতুন শ্রমিক নিয়োগের প্রাক্কালে কর্মীর শারীরিক যোগ্যতা কোম্পানীর দায়িত্ব প্রাপ্ত মেডিকেল অফিসার, মেডিকেল এ্যসিসট্যান্ট ও নার্স যাচাই বাছাই করেন। এরপর কমীর কর্ম দক্ষতা, অভিঞ্জতা ও শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রমানপত্র সমূহ যাচাই করা হয়। কর্মীর নিয়োগ নিশ্চিত করা হলে কোম্পানীর এইচ আর এন্ড কমপ্লাইন্স এর উদ্যোগে নিয়োগ প্রাপ্ত নতুন শ্রমিকদের নিয়োগ পত্র প্রদান করা হয় ও অরিন্টেশন প্রোগ্রামে যোগদান করতে হয় যার মাধ্যমে সকলকে কোম্পানীর নিয়ম নীতি সম্পর্কে সম্যক ধারনা দেওয়া হয়। নতুন শ্রমিক নিয়োগ দেওয়ার পর যত দ্রুত সম্ভব তাদেরকে আইডি কার্ড প্রদান করা হয়।
চাকুরীর বয়স তিন মাস পর্যন্ত শ্রমিককের শিক্ষানবীশকাল হিসেবে গননা করা হয়। এই সময়ের মধ্যে শ্রমিক কোন কারন উল্লেখ ব্যতীত চাকুরী থেকে রিজাইন্ দিতে পারে। আবার কর্তৃপক্ষ কর্তৃক শিক্ষানবীশ শ্রমিকের চাকুরীর অবসানের ক্ষেত্রে কোন আইনী বাধা নেই। তিন মাস অতিবাহিত হবার পর উক্ত শ্রমিকের চাকুরীর অবসানের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ শ্রম আইন মান্য করা হয়।

পরিচিতি Mashiur

He is Garment Automation Technologist and ERP Soft Analyst for clothing industry. He is certified Echotech Garment CAD Professional-China, Aptech-India, NCC-UK and B.Sc. in CIS- London Metropolitan University, M.Sc. in ICT-UITS. He is working as a Successful Digital Marketer and Search Engine Specialist in RMG sector during 2005 to till now. Contact him- apparelsoftware@gmail.com

এটাও চেক করতে পারেন

নিয়োগ চুক্তি

একটি কারখানায় কিভাগে নিয়োগ চুক্তি করতে হয়?

নিয়োগ চুক্তি   নাম ঃ ………………………………………………………………., সেকশনঃ …………………….., নাম ঃ ………………………………………………………………., সেকশনঃ …………………….., পদবী ঃ ……………………………………….কার্ড নং …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।