সর্বশেষ প্রকাশ
Home / উৎপাদন / সাব-কন্ট্রাক্টর নীতিমালা Sub-Contractor Policy কি?
সাব-কন্ট্রাক্টর নীতিমালা
সাব-কন্ট্রাক্টর নীতিমালা Sub-Contractor Policy কি?

সাব-কন্ট্রাক্টর নীতিমালা Sub-Contractor Policy কি?

সাব-কন্ট্রাক্টর নীতিমালা

ক্লথিং লিঃ ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনায় সহযোগীতার জন্য কিছু সাব-কন্ট্রাক্টর গ্রহন করে থাকে। যেহেতু এটি একটি কমপ্লায়েন্ট কারখানা সেহেতু শ্রমিকের অধিকার ও সর্বোচ্চ সুবিধা প্রদানে ক্লথিং লিঃ  আন্তরিকভাবে সচেষ্ট। ক্লথিং লিঃ আশা করছে ব্যবসায়িক সহযোগী হবার পূর্বশর্ত হিসাবে সাব-কন্ট্রাক্টরদেরকেও উল্লিখিত নীতিসমূহ যথাযথভাবে মেনে চলা একান্ত প্রয়োজন। সে দৃষ্টিকোন থেকে একজন সাব-কন্ট্রাক্টরকে নিম্নোক্ত বিষয়সমূহ অবশ্যই মেনে চলতে হবে। অন্যথা ক্লথিং লিঃ এর পক্ষে  করা কোন অবস্থাতেই সম্ভব হবে না।অটো  ফ্যাশন লিঃ ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনায় সহযোগীতার জন্য কিছু সাব-কন্ট্রাক্টর গ্রহন করে থাকে। যেহেতু এটি একটি কমপ্লায়েন্স কারখানা সেহেতু শ্রমিকের অধিকার ও সর্বোচ্চ সুবিধা প্রদানে অটো  ফ্যাশন লিঃ  আন্তরিকভাবে সচেষ্ট। অটো  ফ্যাশন লিঃ আশা করছে ব্যবসায়িক সহযোগী হবার পূর্বশর্ত হিসাবে সাব-কন্ট্রাক্টরদেরকেও উল্লিখিত নীতিসমূহ যথাযথভাবে মেনে চলা একান্ত প্রয়োজন। সে দৃষ্টিকোন থেকে একজন সাব-কন্ট্রাক্টরকে নিম্নোক্ত বিষয়সমূহ অবশ্যই মেনে চলতে হবে। অন্যথা অটো  ফ্যাশন লিঃ এর পক্ষে ঈড়হঃরহঁধঃরড়হ ড়ভ ঝঁন-পড়হঃৎধপঃড়ৎ ংযরঢ় রক্ষা করা কোন অবস্থাতেই সম্ভব হবে না। কাম্পানীর প্রয়োজনে যদি কখনও কোন কারন বশত: সাব কন্ট্রাক কাজের সিদ্ধান্ত গ্রহন করে, সেক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক শ্রম আইন, বাংরাদেশ শ্রম আইন, তথা ইঝঈও, ডজঅচ, ঝঊউঊঢ  কাজের ইত্যাদির  যে সকল শর্তসমূহ  আছে তাহা পালন পরি পালনে কর্তৃপক্ষ বদ্ধ পরিকর। আর এসবের সঠিক রুপদানের উদ্দেশ্যেই এ নীতিমালা প্রনীত।

  • শ্রমিক/কর্মী নিয়োগ, বাছাই, ছাটাই ইত্যাদি সকল বিষয় শ্রম আইন-২০০৬ অনুযায়ী হতে হবে।
  • সকল প্রকার বৈধ লাইসেন্স (অরিজিনাল এবং নবায়নকৃত) থাকতে হবে।
  • সকল প্রকার লেনদেন সম্পর্কিত ডকুমেন্টস সংরক্ষণ করতে হবে।
  • কারখানার অভ্যন্তরে শ্রমিক/কর্মীদের অভিযোগ-অনুযোগের যথাযথ মূল্যায়ন করতে হবে; এবং সে বিষয় দেখাশুনার জন্য কোন বিভাগকে নির্দিষ্টকরণ করতে হবে।
  • কারখানার অভ্যন্তরে সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।
  • অটো ফ্যাশন লি: এর পক্ষ হইতে যখনই কোন কমপ্লাইয়েন্স অফিসার ফ্যাক্টরী পরিদর্শনে যাবেন, তখন ওনাকে ফ্যাক্টরীর সকল প্রকার কাগজপত্র ও বিভিন্ন বিষয় আন্তরিকভাবে সহযোগীতার সহিত সরবরাহ করিতে হইবে। এবং সকল প্রকার পরিদর্শন ও কাগজপত্র সরবরাহ বাধামুক্ত হইতে হবে।

নীতিমালা সম্পর্কে অবহিত করন / যোগাযোগ ঃ

নীতিমালা বাস্তবায়নে অবহিতকরন/ যোগাযোগ একটি বড় বিষয়। সাব কন্ট্রাক কার্যক্রম জন্য সম্পর্কে অবহিত করনের জন্য অত্র কারখানায়  ই-মেইল ব্যবহৃত হয়। এছাড়াও পরিদর্শনের মাধ্যমে কার্যক্রম সম্পর্কে ধারনা নেয়া হয়।

কন্ট্রাক্টর কন্ট্রোল

  • কারখানার অভ্যন্তরে শ্রমিক/কর্মীদের অভিযোগ-অনুযোগের যথাযথ মূল্যায়ন করতে হবে; এবং সে বিষয় দেখাশুনার জন্য কোন বিভাগকে নির্দিষ্টকরন করতে হবে।
  • কন্ট্রাক্টরদের কন্ট্রোল করার জন্য একটি নিরাপত্তা সংক্রান্ত নীতিমালা রয়েছে। নীতিমালার মধ্যে নিুলিখিত বিষয় গুলি সংরক্ষণ করা হয়।
  • কন্ট্রাক্টর কর্তৃক নিয়োজিত সকল শ্রমিকদের পার্সোন্যাল ফাইল সংরক্ষণ করা হয়।
  • কন্ট্রাক্টর কর্তৃক নিয়োজিত সকল শ্রমিকদের ব্যাকগ্রাউন্ড ভেরিফিকেশান চেক করা হয়।
  • কন্ট্রাক্টর কর্তৃক নিয়োজিত সকল শ্রমিকদের ক্রিমিনাল ব্যাকগ্রাউন্ড ভেরিফিকেশান চেক করা হয় (যদি প্রয়োজন হয়)।
  • কন্ট্রাক্টর কর্তৃক নিয়োজিত সকল শ্রমিকদের ফটো সহ আইডি কার্ড দেখা হয়।
  • কন্ট্রাক্টর প্রতিষ্ঠানের বৈধ লাইসেন্স স্বচ্ছলতা চেক করা হয়।
  • কন্ট্রাক্টরদের কারখানা প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা সংক্রান্ত নিয়ম-কানুন মেনে চলতে হবে।
  • প্রত্যেক শ্রমিকদের জাতীয়তা ও নাগরিক সনদ থাকতে হবে।
  • প্রত্যেক শ্রমিকদের নিয়োগপত্র থাকতে হবে।
  • কন্ট্রাক্টর প্রতিষ্ঠান ও কারখানা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে চুক্তি থাকতে হবে।
  • কারখানার অভ্যন্তরে সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।

ফিডব্যাক ও কন্ট্রোল ঃ

সকল প্রকার লেনদেন সম্পর্কিত ডকুমেন্টস সংরক্ষণ করতে হবে।

এই পলিসি কারখানায় বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে কর্তৃপক্ষ সর্বদা সচেতন এবং সার্বিক ব্যাবস্থা গ্রহন করে। এর পরও যদি পলিসি বাস্তবায়ন না হয় বা বাস্তবায়নের পথে কোন বাধাঁর সস্মুখীন হয় , তবে সদা নিয়ন্ত্রন করার জন্য নির্বাহী পরিচালক ব্যাবস্থা গ্রহন করবেন। এমনকি মাননীয় ব্যাবস্থাপনা পরিচালকের হস্তক্ষেপ অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে।

দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি:

সকল প্রকার বৈধ লাইসেন্স (অরিজিনাল এবং নবায়নকৃত) থাকতে হবে। উলে¬খিত নীতিমালাটি প্রনয়ন ও তার সুষ্ঠু  বাস্তবায়নের জন্য পরিচালক ( মার্কেটিং এন্ড মার্চেন্ডাইজিং) এবং জেনারল /সহ: জেনারেল ম্যানেজার এইচ আর এ্যন্ড কমপ্লাইন্স সার্বিক দায়িত্ব পালন করে থাকবেন।

পরিশিষ্ঠঃ

শ্রমিক/কর্মী নিয়োগ, বাছাই, ছাটাই ইত্যাদি সকল বিষয় শ্রম আইন-২০০৬ অনুযায়ী হতে হবে। সাব কন্ট্রাক কাজের ক্ষেত্রে বায়ার বা ক্রেতার আচরন বিধি মেনে চলতে কর্তৃপক্ষ প্রতিশ্রতিবদ্ধ ।

পরিচিতি Mashiur

He is Garment Automation Technologist and ERP Soft Analyst for clothing industry. He is certified Echotech Garment CAD Professional-China, Aptech-India, NCC-UK and B.Sc. in CIS- London Metropolitan University, M.Sc. in ICT-UITS. He is working as a Successful Digital Marketer and Search Engine Specialist in RMG sector during 2005 to till now. Contact him- apparelsoftware@gmail.com

এটাও চেক করতে পারেন

লে-অফকৃত শ্রমিকগণের ক্ষতিপূরণ

লে-অফকৃত শ্রমিকগণের ক্ষতিপূরণ কিভাবে দিতে হয়?

লে-অফকৃত শ্রমিকগণের ক্ষতিপূরণের অধিকার লিঃ কর্তৃপক্ষ এই মর্মে ঘোষনা করছে যে, অত্র প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত কাজের …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।