সর্বশেষ প্রকাশ
Home / আগুন / অগ্নী নিরাপত্তা কি? আগুনের ক্ষেত্রে করনীয় বিষয় সমুহ কি কি?
অগ্নী নিরাপত্তা কি? আগুনের ক্ষেত্রে করনীয় বিষয় সমুহ
অগ্নী নিরাপত্তা কি? আগুনের ক্ষেত্রে করনীয় বিষয় সমুহ কি কি?

অগ্নী নিরাপত্তা কি? আগুনের ক্ষেত্রে করনীয় বিষয় সমুহ কি কি?

অগ্নী নিরাপত্তা ঃ

আগুন, তৈরী পোষাক শিল্পে একটি প্রধান সমস্যা যা নিমিষেই ধ্বংস করে দিতে পারে তৈরী পোষাক ও এর প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানকে, শেষ করে দিতে পারে শ্রমিকদের মূল্যবান জীবন। এই ভয়াবহ আগুনকে প্রতিরোধের জন্য ব্যাবিলন গ্রুপের “ফায়ার সেফটি পলিসি” নামে লিখিত কৌশল আছে যা নিম্নে দেওয়া হলো ঃ Also check english version

  • কারখানার প্রতিটি সেকশন থেকে বের হওয়ার দরজা কারখানায় কাজ চলাকালীন সময়ে  খোলা থাকে যাতে সব দরজা দিয়ে সহজে বের হওয়া যায়।
  • সাধারণ বর্হিগমন পথ ছাড়া অগ্নিকান্ডের সময় বের হয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যে জরুরী বর্হিগমনের জন্য পর্যাপ্ত সংখ্যক জরুরী বর্হিগমন পথ আছে এবং এগুলো এমন ভাবে অবস্থিত যাতে প্রত্যেক ব্যক্তির তার কাজের স্থান থেকে বর্হিগমন পথ পর্যন্ত বাধাহীন ভাবে এবং স্বচ্ছন্দে পৌছাতে পারে।
  • কারখানায় নিযুক্ত প্রতিটি শ্রমিকের জন্য অগ্নিকান্ড সম্পর্কে  কার্যকর এবং সহজে শ্রবণযোগ্য উপায়ে হুসিয়ারী সংকেত দেওয়ার ব্যবস্থা আছে।
  • আগুন লাগলে দ্রুত কারখানায় এসে যাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সক্ষম হয় এ জন্য স্থানীয় ফায়ার ব্রিগেড ইউনিটের সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষা করা হয়।
  • কারখানার প্রতিটি সেকশনে প্রয়োজসীয় সংখ্যক একটি করে ফায়ার হোজ পাইপ আছে ।
  • অগ্নি দূর্ঘটনা ও বৈদ্যুতিক নিরাপত্তা নীতিমালা বিশেষ বর্ণনা

  • কারখানায় কার্বন-ডাইঅক্রাইড,  ড্রাই পাউডার, কার্বন টেট্রাক্লোরাইড নির্মিত যথেষ্ট পরিমান বহন যোগ্য অগ্নি নির্বাপক যন্ত্র আছে ।
  • কারখানার প্রত্যেক বিভাগে নিযুক্ত শ্রমিকদের এক চতুর্থাংশকে বহনযোগ্য অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রের ব্যবহার সম্পর্কে প্রশিক্ষন দেওয়া হয়।
  • অগ্নি নির্বাপক যন্ত্রের ব্যবহার সম্পর্কে  প্রশিক্ষনকে আরো কার্য কারী করার জন্য প্রত্যেক মাসে কমপক্ষে একবার করে কারখানায় অগ্নিনির্বাপক মহরার আয়োজন করা হয়।
  • আগুন লাগলে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে অগ্রনী ভূমিকা পালন করার জন্য কারখানায় “ফায়ার ফাইটিং টিম” ও “রেসকিউ টিম ” নামে দু টি টিম আছে।
  • কারখানার জন্য বিপদজনক হওয়ার যুক্তিসংগত যথেষ্ট কারণ থাকায় কারখানার অভ্যন্তরে ধুমপান নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অগ্নি নিরাপত্তা (ঋরৎব ঝধভবঃু) ঃ আগুনের কারনে যে ধরনের ক্ষয় ক্ষতি হয় তা কখনো আন্দাজ করা যায় না। অগ্নিকান্ড থেকে নিরাপদ থাকার দুটি উপায় রয়েছে, যেমন – আগুনের সূত্রপাত হতে না দেয়া এবং অগ্নিকান্ড হলে পরিকল্পনা মোতাবেক নির্বাপন করে ক্ষয়ক্ষতি রোধ করা। অগ্নিকান্ড রোধ কিংবা

অগ্নি নির্ব াপনের জন্য এবং আগুনের ক্ষেত্রে করনীয় বিষয় সমুহ ঃ

  • বিচলিত হয়ে উপস্থিত বুদ্ধি হারাবেন না, নিজেকে ধীর-স্থির রাখুন।
  • হাতের কাছে যেটুকু পানি পাওয়া যায় সুচনাতেই অগ্নিল, বস্তা দিয়ে আগুন চাপা দিন।
  •  তৈল জাতীয় আগুনে পানি না দিয়ে বালু, ভিজা মোটা কাপড় বা ভিজা কম্বল বা ফোম জাতীয় রাসয়সিক পদার্থ ব্যবহার করুন।
  •  আগুন যাতে বিস্তৃত হতে না পারে সেজন্য আশেপাশের জিনিসপত্র সরিয়ে ফেলুন।
  • বৈদ্যুতিক আগুন লাগলে দ্রুত মেইন সুইচ বন্ধ করুন।
  • পরনের কাপড়ে আগুন লাগলে সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে গড়াগড়ি দিন বা ভিজা মোটা কম্বল দিয়ে নিজেকে জড়িয়ে নিন। কখনো দৌড়াবেন না। তাহলে  আগুন বেড়ে যাবে।

পরিচিতি Mashiur

He is Garment Automation Technologist and ERP Soft Analyst for clothing industry. He is certified Echotech Garment CAD Professional-China, Aptech-India, NCC-UK and B.Sc. in CIS- London Metropolitan University, M.Sc. in ICT-UITS. He is working as a Successful Digital Marketer and Search Engine Specialist in RMG sector during 2005 to till now. Contact him- apparelsoftware@gmail.com

এটাও চেক করতে পারেন

অগ্নিানর্বাপন যন্ত্রের প্রকারভেদ। মানাসিক ঝুকিঁ সৃষ্টিকারী উপাদান

অগ্নিানর্বাপন যন্ত্রের প্রকারভেদ। মানাসিক ঝুকিঁ সৃষ্টিকারী উপাদান কি কি?

অগ্নিানর্বাপন যন্ত্রের প্রকারভেদ সহজে বহনযোগ্য অগ্নি নির্বাপন যন্ত্র সাধারনত ০৫ প্রকার হয়ে থাকে। • ওয়াটার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।