ইয়ার প্লাগ ব্যবহারের গুরুত্ব, প্রয়োজনীয়তা ও সাবধানতা বিষয়ক আলোচনা

ইয়ার প্লাগ ব্যবহারের গুরুত্ব, প্রয়োজনীয়তা ও সাবধানতা বিষয়ক আলোচনা
ইয়ার প্লাগ ব্যবহারের গুরুত্ব, প্রয়োজনীয়তা ও সাবধানতা বিষয়ক আলোচনা

ইয়ার প্লাগ ব্যবহারের গুরুত্ব, প্রয়োজনীয়তা

কানের ছিপি (ইয়ার প্লাগ ও মাফ): যেখানে শব্দের পরিমান বেশি সেই স্থানে অবশ্যই কানে ইয়ার প্লাগ ব্যবহার করে কাজ করা উচিৎ। নতুবা কানের পর্দা ফেটে যেতে পারে বা কানের মারাত্বক ক্ষতি হতে পারে। কর্মরত শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়ে পি.পি.ই. ব্যবহার বিধি,সাবধানতা ,গুরুত্ব এবং প্রয়োজনীয়তা বিষয়ক প্রশিক্ষনের আয়োজন করা হয় । প্রশিক্ষনার্থীদের প্রশিক্ষন প্রদান করেন কোম্পানির সিনিয়র অফিসার এইচ,আর এন্ড কমপ্লায়েন্স প্রসিক্ষক গন। …

আমাদরে কারখানার ওভেন সকেশনরে শ্রমকিরা সব সময় ইয়ার প্লাগ পরধিান করা বাধ্যতামূলক। তাই অবশ্যই কানে ইয়ার প্লাগ ব্যবহারে যতœবান হওয়া উচিৎ। শিল্পের প্রাণ হলো উৎপাদন , উৎপাদন প্রক্রিয়া অব্যাহত না থাকলে শিল্পের বিকাশ ঘটবে না । আর এই উৎপাদন প্রক্রিয়া পরিচালনা করে থাকে মানুষ এবং মানুষ চালিত যন্ত্রপাতি । কাজ পরিচালনা করতে গেলে আমরা প্রথমেই যে জিনিসটির প্রতি লক্ষ্য রাখব তা হল পরিবেশ বা পরিবেশ গত স্বাস্থ্য । কাজের জায়গা পরিস্কার পরিছন্নতা থাকলে কাজ করা অতি সহজ ।

এয়ার প্লাগের অগ্রভাগটি সহজ ভাবে কানে প্রবেশ করিয়ে আঙ্গুল দিয়ে চাপ দিন। এতে প্লাগটি সম্পূর্ণ ভাবে আপনার কানে প্রবেশ করবে। আর অপরিছন্ন পরিবেশে কাজ করলে আমরা শারিরীক ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পরতে পারি এবং বিভিন্ন রোগ আমাদেরকে আক্রান্ত করতে পারে যার পরিনতি তে মৃত্যু ও হতে পারে । আমরা তাই প্রথমে আমাদের কাজের জায়গা পরিস্কার রাখব এরপর আমরা যে ব্যাপারটি গুরুত্বের সহিত দেখব তা হল আমরা যেসব মেশিন বা যন্ত্রপাতি দিয়ে কাজ করি সেগুলো যেন আমরা সাবধানতার সাথে যথাযথ ভাবে ব্যাবহার করি এবং এসব মেশিনের দ্বারা কাজ করার সময় যাতে কোন দূর্ঘটনা না ঘটে সেজন্য চচঊ ব্যাবহার করার নির্দেশনা দেওয়া আছে। অতএব, সেগুলো যেন অবশ্যই সঠিক নিয়মে ব্যবহার করি, তবেই আমরা আমাদের কাজের স্থান পরিবেশ সর্বপরি নিজেকে নিরাপদ রাখতে পারব ।

প্রথমে আমাদের জানা দরকার ব্যক্তিগত আতœরক্ষামূলক সরঞ্জামাদী বলতে কি বুঝি ।
ব্যাক্তিগত জীবনে চলাচল এবং কাজ পরিচালনা করার উদ্দ্যেশে এবং নিজেদের রক্ষা করার জন্য যে সকল সরঞ্জামাদী ব্যবহার করে থাকি তাকে ব্যক্তিগত আতœরক্ষামূলক সরঞ্জামাদী বুঝায় ।

ইয়ার প্লাগ ঃ
দুই আঙ্গুলের ফাকে আলতোভাবে এয়ার প্লাগটি ধরুন। ডান হাত মাথার পিছনে দিয়ে বাম কানের উপরিভাগ দুই আঙ্গুলের সাহায্যে ধরুন এবং উপর দিকে হালকা ভাবে টান দিন। এতে কানের ছিদ্র প্রসারিত হয়ে এয়ার প্লাগ প্রবেশে সহয়তা করবে। অতি শব্দের মধ্যে কাজ করলে অবশ্যই কানে ইয়ার প্লাগ পরে কাজ করতে হবে। উৎপাদন প্রক্রিয়ায় কিছু স্থানে শব্দ/অতি শব্দের সৃষ্টি হয় । কোন কোন সময় মেশিন ত্র“টির কারনে ও হয়ে থাকে। তাই আমাদেরকে শব্দ দূষন এবং অতি শব্দ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য কানে ইয়ার প্লাগ ব্যাবহার করা দরকার। অতি শব্দ কর্ম পরিবেশে বিরক্তির সৃষ্টি করে । আমাদের অতি শব্দ এবং শব্দ দূষন এর ফলে যে সকল সমস্যার সন্মুখীন হতে হবে তা হল ঃ

 শ্রমিকের দক্ষতায় ব্যাঘাত সৃষ্টি করে

 ভীত এবং ক্লান্তি বাড়িয়ে দেয়

 কথাবলায় ব্যাঘাত সৃষ্টি সহ মনযোগ নষ্ট করে

 নিয়মিত শব্দ দূষন অস্থায়ী বা স্থায়ী বধিরতার সৃষ্টি করে

 শরীরের হাড় ও হাড়ের সংযোগ স্থলগুলো নষ্ট করে ফেলে

 হৃদযন্ত্র ও স্নায়ুতন্ত্রেও উপর বিরুপ প্রভাব সৃষ্টি করে

সারাংশ

অতএব, যে সকল সেকশনে শব্দ হয় সে সকল সেকশনের কর্মরত সকলকে ”এয়ার প্লাগ” ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে । অল্প সময়ের মধ্যেই এটি আপনার কানে মাপমত বসে যাবে। লক্ষ্য রাখবেন যাতে এয়ার প্লাগটি সবসময় আপনার কানে লম্বালম্বিভাবে স্থাপিত থাকে। কখনোই আড়াআড়ি ভাবে নয়। শুকনো এবং পরিষ্কার হাতে এটি ব্যবহার করুন। অতিরিক্ত ময়লা হলে পাল্টে ফেলুন।

By Mashiur

He is Top Class Digital Marketing Expert in bd based on Google Yahoo Alexa Moz analytics reports.. He is certified IT Professional from Aptech, NCC, New Horizons & Post Graduated from London Metropolitan University (External) in ICT. Cell# +880 1792525354. যোগাযোগ এর জন্য নিম্নে Leave a Reply এ গিয়ে কমেন্টস Comments করুন

Leave a Reply