কিভাবে শিল্পকারখানায় পয়ঃ নিস্কাশন বা ওয়াশরুমের ব্যবস্থা করতে হয় সে সম্পর্কে আলোচনা

পয়ঃ নিস্কাশন ওয়াশরুমের
কিভাবে শিল্পে পয়ঃ নিস্কাশন ওয়াশরুমের ব্যবস্থা করতে হয়?

শিল্পে পয়ঃ নিস্কাশন / ওয়াশরুমের ব্যবস্থা

বাংলাদেশের গার্মেন্টস শিল্পে পুরুষ এবং নারীর অবদান প্রায় সমতুল্য। সেক্ষেত্রে টয়লেট একটি গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার বিষয়। অনেক ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত টয়লেটের অভাবে পুরুষ এবং নারী শ্রমিককে বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হয়। প্রায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে পরিবেশ বান্ধব টয়লেটের অভাব থাকে । অনেক ফ্যাক্টরীতে থাকে না নারী ও পুরুষের আলাদা টয়লেট ব্যবস্থা। বাধাগ্রস্থ হয় কাজের গতি এবং মান, বৃদ্ধি পায় শারীরিক ও মানষিক কষ্ট।তাই প্রতিটি শিল্পকারখানায় পয়ঃ নিস্কাশন  উয়াশরুমের ব্যবস্থা থাকা অপরিহার্য।

শিল্পে টয়লেটে ব্যবস্থা কেমন হওয়া উচিৎ:

অকুপেশনাল সেফটি এন্ড হেলথ এডমিনিস্ট্রেশন অনুযায়ী টয়লেট ব্যবস্থা (পুরুষ শ্রমিকের জন্য) নি¤œরূপ (টোবল নং ১০.২.১) হতে হবে,

পুরুষ শ্রমিক সংখ্যার সাথে টয়লেটে সংখ্যার সম্পর্ক

ব্যক্তি/ শ্রমিক সংখ্যা টয়লেট সুবিধা (সংখ্যা)
১-১৫ জন হলে ১ টি টয়লেট
১৬-৩৫ জন হলে ২ টি টয়লেট
৩৬-৫৫ জন হলে ৩ টি টয়লেট
৫৬-৮০ জন হলে ৪ টি টয়লেট
৮১-১১০ জন হলে ৫ টি টয়লেট
১১১-১৫০ জন হলে ৬ টি টয়লেট যথেষ্ট
১৫০ জনের অতিরিক্ত এবং প্রতি ৪০ জনের জন্য
অতিরিক্ত ১টি করে টয়লেট

অকুপেশনাল সেফটি এন্ড হেলথ এডমিনিস্ট্রেশন অনুযায়ী টয়লেট ব্যবস্থা (মহিলা শ্রমিকের জন্য) নি¤œরূপ (টেবিল নং ১০.২.২) হতে হবে,

মহিলা শ্রমিক সংখ্যার সাথে টয়লেটে সংখ্যার সম্পর্ক

ব্যক্তি/ শ্রমিক সংখ্যা টয়লেট সুবিধা (সংখ্যা)
১-৫ জন হলে ১ টি টয়লেট
৬-২৫ জন হলে ২ টি টয়লেট
২৬-৫০ জন হলে ৩ টি টয়লেট
৫১-৭৫ জন হলে ৪ টি টয়লেট
৭৬-১০০ জন হলে ৫ টি টয়লেট
১০১-১৫০ জন হলে ৬ টি টয়লেট যথেষ্ট
১৫০ জনের অতিরিক্ত এবং প্রতি ৪০ জনের জন্য
অতিরিক্ত ১টি করে টয়লেট

পুরুষ এবং মহিলা শ্রমিকদের আলাদা আলাদা টয়লেটের ব্যবস্থা থাকতে হবে।
কর্মস্থল হতে টয়লেটে সুবিধার দুরত্ব যথাযথ কাছাকাছি হতে হবে যেন শ্রমিকেরা তাৎক্ষণিক টয়লেটে যেতে পারে।
পুরুষ এবং মহিলা শ্রমিকদের গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা রক্ষার জন্য প্রতিটি টয়লেটের প্রকষ্ঠ আলাদাভাবে দরজা, পানি, পর্যাপ্ত উচ্চতা সম্পন্ন পার্টিশনের নিশ্চয়তা প্রদান করতে হবে।
প্রতিটি টয়লেট বা শৌচাগারে ঠান্ডা, গরম বা ঈষৎ গরম পনির অবিরাম প্রবাহ নিশ্চিৎ করতে হবে।
প্রতিটি টয়লেট বা শৌচাগারে অবশ্যই টয়লেট টিস্যু থাকতে হবে।
প্রতিটি টয়লেট বা শৌচাগারে হাত ধোয়ার সাবান বা সাবান সমতুল্য জিনিস থাকতে হবে।
প্রতিটি টয়লেট বা শৌচাগারে হাত মোছার জন্য গামছা বা তোয়ালে থাকতে হবে।

টয়লেটের ব্যবহার বিধি:

টয়লেট ব্যবহারের পর ফ্লাশ করতে হবে
টয়লেটের ভিতরে ফেব্রিক, কাগজ বা ময়লা ফেলা যাবে না
ফ্যাক্টরীতে বা টয়লেটের ভিতরে ধুমপান করা যাবে না
টয়লেটের দেয়ালে বা ফ্লোরে থুথু ফেলা যাবে না
তরল সাবান ও পানির অপচয় করা যাবে না
ময়লা নির্দিষ্ট ডাস্টবিনে ফেলতে হবে

By Mashiur

He is Top Class Digital Marketing Expert in bd based on Google Yahoo Alexa Moz analytics reports.. He is certified IT Professional from Aptech, NCC, New Horizons & Post Graduated from London Metropolitan University (External) in ICT. Cell# +880 1792525354. যোগাযোগ এর জন্য নিম্নে Leave a Reply এ গিয়ে কমেন্টস Comments করুন

Leave a Reply