স্টাফ নিয়োগ কি? স্টাফ নিয়োগের কৌশল ও পদ্ধতি গুলো কি কি?

স্টাফ নিয়োগের কৌশল
স্টাফ নিয়োগের কৌশল ও পদ্ধতি গুলো কি কি?

স্টাফ নিয়োগ কৌশল/পদ্ধতি:

স্টাফ নিয়োগ -প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনে কোন স্টাফ/ব্যক্তিকে কোন পদের জন্য নিয়োগ দেয়ার কৌশল/পদ্ধতিই হল ঐ প্রতিষ্ঠানের স্টাফ নিয়োগের কৌশল/পদ্ধতি।
নিয়োগ মানেই শূন্য পদ বা পজিশন পূরণ করা নয় ইহা একটি ধারাবাহিক, দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ যার মাধ্যমে অর্গানাইজেশনে একটি উচ্চ মানের কর্ম প্রবাহ সৃষ্টি হবে এবং যারা ঐ অর্গানাইজেশনের বর্তমান এবং ভবিষ্যতের লক্ষ্য অর্জন বা পূরণে সমর্থ হবে।

পেশাগত জ্ঞান ও দক্ষতা, কাজের ধরন এবং অর্জন, কাজের নির্দেশনা, কাজের মান (কাজের প্রতি একাগ্রতা ও নির্ভুল কাজ), পরিকল্পনামাফিক এবং সুশৃঙ্খলভাবে কাজের তদারকি, সিদ্ধান্ত তৈরীর ক্ষমতা, সমন্বয় করার ক্ষমতা, যোগাযোগ করার ক্ষমতা, চারিত্রিক স্বভাব এবং ব্যবহার, সহকর্মী বা টিমের সাথে সম্পর্ক, কোন কিছু শুরু করার ক্ষমতা এবং দায়িত্বজ্ঞান ইত্যাদি এর উপর ভিত্তি করে প্যানেল বোর্ড স্টাফদের মূল্যায়ন করবে ।

ড় প্রত্যেকটি কে.পি.আই কে ওয়েটেইজ পয়েন্ট এর ভিত্তিতে টোটাল মার্কস হিসাব করা হবে এবং মার্কস এর ভিত্তিতে ইনক্রিমেন্ট নির্দেশিত হবে বা নির্বাচন করা হবে
ড় প্রত্যেক স্টাফের আলাদা আলাদা মূল্যায়নপত্র থাকবে যেখানে স্টাফের মূল্যায়ন এবং পদন্নতির বিস্তারিত থাকবে
ড় প্যানেল বোর্ড বছরের নির্দিষ্ট সময় স্টাফদের মূল্যায়ন করে স্টাফদের গ্রেড নির্ধারন করবে এবং গ্রেড অনুযায়ী বেতনবৃদ্ধি এবং পদন্নতি প্রস্তাব করবে। প্রস্তাবপত্রে অবশ্যই প্যানেল বোর্ড সদস্যেদের সিগনেচার থাকবে
ড় ডিপার্টমেন্ট অনুযায়ী মূল্যায়ন রিপোর্টের সারাংশ তৈরী করতে হবে এবং তিন সদস্যের প্যানেল বোর্ড উক্ত মূল্যায়ন রিপোর্টটি প্রস্তাব করবে এবং টপ ম্যানেজমেন্ট কতৃক অনুমোদন নিতে হবে
ড় ফাইনাল অনুমোদনকারী হিসেবে সন্মানিত এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মহোদয় ভুমিকা পালন করবেন
ড় টপ ম্যানেজমেন্ট কর্তৃক নির্ধারিত অ্যাভারেজ ইনক্রিমেন্ট পারসেনটেইজ এর মধ্যে সবার ইনক্রিমেন্ট ব্যালেন্স করতে হবে
ড় কোন স্টাফের প্রস্তাবকৃত মূল্যায়ন পরিবর্তন করার প্রয়োজন হলে অবশ্যই তা প্যানেল বোর্ডের প্রধানকে অবহিত করতে হবে

স্টাফ নিয়োগের কৌশল
স্টাফ নিয়োগের কৌশল ও পদ্ধতি গুলো কি কি?

নিয়োগ এবং নির্বাচন পক্রিয়া:

ক্স পেশা, চাকরী বা কাজ বিশ্লেষণ
ক্স নিয়োগের অনুমোদন
ক্স পোষ্ট বা পদের জন্য বিজ্ঞাপন
ক্স নির্বাচন প্যানেল গঠন
ক্স লিখিত এবং মৌখিক / সাক্ষাৎকার পরীক্ষার জন্য নির্বাচন
ক্স সাক্ষাৎকারের জন্য নির্বাচন
ক্স যোগ্য প্রার্থী নিয়োগ
ক্স নিয়োগের নথিপত্র প্রদান
ক্স নতুন কর্মচারীকে নিয়োগ করা বা পদে অধিষ্ঠিত করা

উদ্যেশ্য:

ড় কাজের প্রবাহ ঠিক রাখা
ড় ফ্যাক্টরির ঊভভরপরবহপু বা কর্মদক্ষতা বাড়ানো
ড় শৃঙ্খলা বজায় রাখা

স্টাফ দুই ভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত হতে পারে:

১.প্রতিস্থাপন নিয়োগ
২.নতুন নিয়োগ

১.২.১ প্রতিস্থাপন নিয়োগ

কোন স্টাফের শূন্য আসন/পদের বিপরীতে কাউকে নিয়োগ দেয়াকে বোঝায়।

নিয়মাবলী:

ড় প্রতিস্থাপন নিয়োগ এর জন্য নতুনভাবে কোন করার প্রয়োজন নেই।
ড় তবে সন্মানিত এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মহোদয়কে নিয়োগের ব্যাপারে অবশ্যই অবহিত করতে হবে।
ড় সংশ্লিষ্ট ইউনিট / ফ্যাক্টরীর এইচ.আর এডমিন প্রতিস্থাপন নিয়োগের বিষয়টি এইচ.আর এডমিন জি.এম, সংশ্লিষ্ট ইউনিট / ফ্যাক্টরীর আই.ই ডিপার্টমেন্টকে ইমেইল দিয়ে অবহিত করবে।

১.২.২ নতুন নিয়োগ

শূন্য আসন/পদের বিপরীতে নয়, নতুন একটি পদের জন্য কাউকে নিয়োগ দেয়াকে বোঝায় কিংবা আগে থেকেই যে পদটি শূন্য ছিল সেই পদের বিপরীতে নিয়োগকে বোঝায়।

নিয়মাবলী:

ড় ম্যানপাওয়ার রিকয়ারমেন্ট ফরমে অবশ্যই এডমিন জি.এম এবং সন্মানিত এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর হোদয়ের লিখিত অনুমোদন থাকা সাপেক্ষে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।
ড় স্টাফ নিয়োগ দানের ক্ষেত্রে কোম্পানী নির্ধারিত শিক্ষাগত যোগ্যতার নিচে কোন স্টাফ নিয়োগ করা যাবে না।
ড় কোন অবস্থায় একক সিদ্ধান্তে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাবে না।

১.২.৩ সি.ভি সংগ্রহের পদ্ধতি:

ড় সরাসরি রেফারেন্সের মাধ্যমে
ড় জব সার্চিং প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ( বিডি জবস / প্রথম আলো জবস)
ড় সংবাদপত্র / মিডিয়া / টেলিভিশন

১.২.৪ সি.ভি আহবান এবং বাছাই পদ্ধতি:

ড় সংশ্লিষ্ট ডিপার্টমেন্ট এবং এইচ.আর এডমিন ডিপার্টমেন্ট সংগ্রহিত সি.ভি সমুহের প্রাথমিক যাচাই-বাছাই সম্পন্ন করে একটি তৈরী করবে।
ড় প্রাথমিক যাচাই-বাছাই শেষে বাছাইকৃত / সর্ট লিষ্টেড প্রার্থীদের নির্দিষ্ট দিনে এবং সময়ে মোবাইল, টেলিফোন, চিঠি এবং ইমেইলের মাধ্যমে মৌখিক কিংবা লিখিত পরীক্ষার জন্য আহবান করবে।

১.২.৫ মৌখিক পরীক্ষার জন্য নির্দেশাবলী:

ড় মাসের ১০, ২০ অথবা ৩০ তারিখে বাছাইকৃত চাকরী প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার জন্য আহবান করা হবে।
ড় যদি মাসের ১০, ২০ অথবা ৩০ তারিখ কোন ছুটির দিন হয় তাহলে মৌখিক পরীক্ষা তার পরবর্তী কর্মদিবসে সম্পন্ন করতে হবে।
ড় প্যানেল বোর্ড গঠন করে প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার মূল্যায়ন করতে হবে। অবশ্যই প্যানেল বোর্ড স্ব স্ব ডিপার্টমেন্টের হেড / ম্যানেজার, আই.ই হেড / ম্যানেজার এবং এইচ.আর এডমিন হেড / ম্যানেজার দের সমন্বয়ে গঠিত হবে।

১.২.৬ প্রার্থী চুড়ান্ত বাছাই পদ্ধতি:

ড় প্যানেল বোর্ড প্রথমত লিখিত কিংবা মৌখিক পরীক্ষার আয়োজন করবে
ড় লিখিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র অবশ্যই আই.ই ডিপার্টমেন্ট কর্তৃক তৈরী হতে হবে
ড় লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষার মোট ফলাফলের ভিত্তিতে প্রার্থী বাছাই করতে হবে
ড় লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষায় প্রার্থীকে আলাদাভাবে পাশ করতে হবে
ড় লিখিত কিংবা মৌখিক এর কোন একটি বিষয়ে অকৃতকার্য হলে প্রার্থীকে নিয়োগের অযোগ্য বলে গন্য করা হবে
ড় সর্বোচ্চ রেজাল্টধারীকে চুরান্তভাবে নিয়োগের জন্য প্যানেল বোর্ড সংশ্লিষ্ট ডিপার্টমেন্টকে প্রস্তাব করবে
ড় এইচ.আর এডমিন ডিপার্টমেন্ট অবশ্যই সন্মানিত এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (ঐড়হড়ৎধনষব ঊীবপঁঃরাব উরৎবপঃড়ৎ) মহোদয় এবং সংশ্লিষ্ট ডিপার্টমেন্টে দায়িত্বরত হেড / ম্যানেজারের কনফার্মেশন পত্র নিয়ে নির্বাচিত প্রার্থীকে ফোনের মাধ্যমে নিয়োগ নিশ্চিত করবে

দাযিত্বরত ব্যক্তি:

ড় স্ব স্ব ডিপার্টমেন্টের দায়িত্বরত হেড / ম্যানেজার
ড় আই.ই হেড / ম্যানেজার
ড় এইচ.আর এডমিন হেড / ম্যানেজার

পর্যবেক্ষক:

ড় আই.ই হেড / ম্যানেজার
ড় এ্যাডমিন জি.এম
ড় প্রডাকশন জি.এম
ড় সন্মানিত এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর

১.৩.১ পারফর্মেন্স মূল্যায়ন

হল প্রত্যেক কর্মচারী বা ব্যক্তির কাজ বা কর্মক্ষমতার এবং কাজে উন্নয়নের সম্ভাবনা বা ক্ষমতার একটি নিয়ামানুগ ও পুনরাবৃত্তি / মেয়াদী মুল্যায়ন প্রক্রিয়া।

১.৩.২ পারফর্মেন্স মূল্যায়নের উদ্যেশ

ড় কর্মচারীর প্রতিক্রিয়া
ড় ক্ষতিপূরণ সিদ্ধান্ত
ড় পদন্নতি / পদাবনতি / স্থানান্তর
ড় ব্যক্তিগত উন্নয়নের জন্য প্রশিক্ষন
ড় প্রতিশ্রুতিশীল কর্মচারীদের সম্ভাব্য স্বীকৃতি
ড় স্ব-ভক্তি বা আত্মনিষ্ঠা হ্রাস
ড় কর্মচারীর জন্য স্বচ্ছতা
ড় পর্যবেক্ষণে উন্নতি

১.৩.৩ পারফর্মেন্স মূল্যায়ন প্রক্রিয়া

ড় কর্মবিশ্লেষণ (ঔড়ন অহধষুংরং)

ড় ডেলিভারএ্যাবলস / সুযোগ বুঝতে পারা
ড় কার্যবিবরণ বিস্তারিত বর্ণনা
ড় পারফর্মেন্সের মানদন্ড প্রতিষ্ঠা
ড় পারফর্মেন্সের মানদন্ড নির্ধারণ
ড় পারফর্মেন্স পরিমাপের বেঞ্চমার্ক
ড় সাধারন কর্মচারী দ্বারা অধিগম্য / লভ্য
ড় পরিস্কার এবং বোধগম

ড় কমিউনিকেটিং পারফর্মেন্স স্ট্যান্ডার্ড

ড় মূল্য নির্ধারক বনাম মূল্যায়ন বা মূল্য নির্ধারণ
ড় উভয়কেই মানদন্ডের সাথে সম্পর্কিত হতে হবে বা যোগাযোগ রক্ষা করতে হবে যোগাযোগের মাধ্যম হবে লিখিত
ড় প্রকৃত / আসল পারফর্মেন্সের পরিমাপ
ড় উদ্যেশ্য পরিমাপ: পরিমানগত ও যাচাইযোগ্য
ড় বিষয়ী পরিমাপ: ব্যক্তিগত মানদন্ড ও মতামত

ড় সংশোধনী পদক্ষেপ

ড় ইতিবাচক: আলোচনা এবং উন্নয়ন পরিকল্পনা
ড় নেতিবাচক:অপমানকর এবং সতর্কতামূলক

১.৩.৪ পারফর্মেন্স মূল্যায়ন পদ্ধতি

পারফর্মেন্স মূল্যায়ন পদ্ধতি দুই ভাগে ভাগ করা যেতে পারে –

১. গতানুগতিক পদ্ধতি
২. আধুনিক পদ্ধতি
গতানুগতিক পদ্ধতি

ড় আনস্ট্রাকচারড পদ্ধতি
ড় সরল পদ্ধতি
ড় জোড় তুলনা পদ্ধতি
ড় ম্যান টু ম্যান বিশ্লেষণ বা পর্যালোচনা
ড় চেকলিস্ট পদ্ধতি
ড় উন্মুক্ত রচনা পদ্ধতি
ড় জটিল ঘটনা পদ্ধতি
ড় মাঠ পর্যালোচনা পদ্ধতি

১.৩.৫ স্টাফদের বাৎসরিক মূল্যায়ন কৌশল:

যে প্রকৃয়া, পদ্ধতি বা কৌশল এর মাধ্যমে বাৎসরিক কাজের ধরন ও তার অগ্রগতির (অর্জন) উপর ভিত্তি করে স্টাফদের মূল্যায়ন করা হয়। স্টাফদের মূল্যায়ন পদ্ধতি বা কৌশল যে কোন অর্গানাইজেশনের মানদন্ড হিসেবে বিবেচিত হয়।

উদ্দশ্যে :

ড় স্টাফদের মূল্যায়ন পদ্ধতির মানদন্ড তৈরী করা
ড় স্টাফদের সঠিকভাবে মূল্যায়ন করা
ড় স্টাফদের কাজের মান ও কাজের প্রতি দায়িত্বশীলতা বাড়ানো
ড় স্টাফদের কে অনুপ্রেরণা যোগানো
ড় শ্রম আইন মেনে চলা

নিয়মাবলী:

ড় স্টাফদের একটি সতন্ত্র ডাটাবেইজ থাকবে যেখানে তাদের ব্যক্তিগত তথ্যাদি বিস্তারিত থাকবে যেমন: নাম, আই.ডি নং, পদবি, ডিপার্টমেন্ট, যোগদানের তারিখ, বর্তমান বেতন, অভিজ্ঞতা ইত্যাদি।
ড় ডাটাবেইজ থেকে ডিপার্টমেন্ট অনুযায়ী স্টাফদের একটি তালিকা তৈরী করে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি নির্দিষ্ট ফরম্যাটে লিপিবদ্ধ করতে হবে।
ড় স্টাফদের মূল্যায়নের জন্য ডিপার্টমেন্টাল হেড, আই.ই হেড এবং এইচ.আর এডমিন হেডদের সমন্বয়ে একটি প্যানেল বোর্ড গঠন করতে হবে ।
ড় প্যানেল বোর্ড কমিটির হেড হিসেবে আই.ই ডিপার্টমেন্টের হেড বা ম্যানেজার ভুমিকা পালন করবে।
ড় স্টাফদের মূল্যায়নের জন্য প্যানেল বোর্ড ডাটাবেইজ থেকে কিংবা যে কোন সেকশন / ডিপার্টমেন্ট থেকে প্রয়োজন মত তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে।
ড় কে.পি.আই এর ভিত্তিতে স্টাফদের মূল্যায়ন করতে হবে। কাটিং, সুইং, ফিনিশিং, কোয়ালিটি ইত্যাদি ডিপার্টমেন্টের কে.পি.আই ) ভিন্ন ভিন্ন হবে। যেমন কাটিং সেকশন (টেবিল নং ১.৩.১), সুইং সেকশন (টেবিল নং ১.৩.২), ফিনিসিং সেকশন (টেবিল নং ১.৩.৩), কোয়ালিটি সেকশন (টেবিল নং ১.৩.৪), মেইন্টেনেন্স সেকশন (টেবিল নং ১.৩.৫) এবং স্টোর সেকশন (টেবিল নং ১.৩.৬) স্টাফদের পারর্ফমেন্স মূল্যায়ন কে.পি.আই (কচও) নি¤œরূপ-

অর্গানাইজেশনাল স্ট্রাকচার:

ড় অর্গানাইজেশনাল স্ট্রাকচার কোম্পানীর সকল কর্মচারির অফিশিয়াল রিপোর্টিং রিলেশনসীপের গাইডলাইন হিসেবে কাজ করে যা কোম্পানীর কাজের নিয়মাবলী / নির্দেশাবলী / নীতিমালা হিসেবে বিবেচিত
ড় কোম্পানীর কাঠামোগত সীমারেখা যা কোম্পানীতে নতুন কোন পদ / পদবী / অবস্থান তৈরীতে সহজতর করে
ড় অপারেশনাল ইফিসিয়েন্সি বৃদ্ধি করে
ড় সিদ্ধান্ত গঠন এবং যোগাযোগের জন্য গুরুত্বপূর্ণ
ড় জনশক্তিকে কর্তৃত্ব / ক্ষমতা / শাসন বা দায়িত্বভার বিতরনে সক্ষম
ড় যখন কোন ব্যক্তি চাকুরীতে নতুন যোগদান করে, সাথে সাথে জানতে পারবে সে কোথায় এবং কাহাকে রিপোর্ট করবে
ড় কর্মচারীর পারফর্মেন্স মূল্যায়নের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ‘-
ড় কোম্পানীর নির্দিষ্ট লক্ষ্য পূরণে / অর্জনে অর্গানাইজেশনাল স্ট্রাকচার গুরুত্বপূর্ণ
ড় অর্গানাইজেশনাল স্ট্রাকচার এ চেইন অব কমান্ড বজায় থাকে

By Mashiur

He is Top Class Digital Marketing Expert in bd based on Google Yahoo Alexa Moz analytics reports. He is open source ERP Implementation Expert for RMG Industry. He is certified IT Professional from Aptech, NCC, New Horizons & Post Graduated from London Metropolitan University (External) in ICT . You can Hire him. Email- [email protected], Cell# +880 1792525354

Leave a Reply